টয়লেটে বসার পর সাপের কামড় নিম্নাঙ্গে!

টয়লেটে বসার পর অজগর সাপের কামড়ে সামান্য আহত হয়েছেন ৬৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। অস্ট্রিয়ার গ্রাজ শহরের এই বাসিন্দা জানিয়েছেন, নিম্নাঙ্গে চিমটি পাওয়ার পর তিনি টয়লেটের অভ্যন্তরে পাঁচ ফুট লম্বা একটি রেট্রিকিউলেটেড অজগর শনাক্ত করেন।

রেট্রিকিউলেটেড অজগর মূলত এশিয়ার বাসিন্দা। ধারণা করা হচ্ছে ড্রেনেজ নেটওয়ার্কের মধ্য দিয়ে সাপটি ওই টয়লেটে ঢুকে পড়ে। পুলিশের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘গ্রাজ শহরের বাসিন্দার নিজস্ব বক্তব্য হলো টয়লেটে বসার পর নিম্নাঙ্গে চিমটি অনুভব করেন।’ সামান্য আহত হওয়ায় তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হয়েছে।

অজগর সাপটি কোন জায়গা থেকে টয়লেটে পৌঁছালো তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে এক প্রতিবেশির অ্যাপার্টমেন্ট থেকে পালিয়েছিলো সেটি।

জরুরি সেবা বিভাগের তরফ থেকে যোগাযোগের পর একজন সরীসৃপ বিশেষজ্ঞ টয়লেট থেকে সাপটি অপসারণ করেন। পরে টয়লেটটি পরিষ্কার করে মালিককে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

২৪ বছর বয়সী প্রতিবেশি ১১টি সাপের মালিক। পুলিশ জানিয়েছে, অবহেলার কারণে শারিরীকভাবে ক্ষতি করায় সন্দেহভাজন হিসেবে তাকে তলব করা প্রসিকিউটরের কার্যালয়ে।

রেট্রিকিউলেটেপ অজগর বিশ্বের সবচেয়ে বড় সাপ। এটা স্বভাবজাতভাবে মানুষকে আক্রমণ করে না। তবে হুমকির মুখে পড়েছে বলে মনে করলে কিংবা খাবার ভেবে বসলে কামড় বসাতে পারে।

সূত্র: স্কাই নিউজ