‘ঢাকায় মশা বেড়েছে’: মন্ত্রী

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেছেন, মশা নিয়ে মানুষ অতিষ্ঠ। এ বিষয়ে বিভিন্ন ধরনের খবর প্রচার হচ্ছে। আমি নিজেও জানি মশার বেড়েছে। যদিও গতবছর যে পরিমাণ কিউলেক্স এবং অ্যানোফিলিস মশা ছিলো এবছর সেই তুলনায় কম। তবে এখনো যে পরিমাণ রয়েছে তাও সহনীয় নয়।

বুধবার (৩ মার্চ) দুপুর দেড়টায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে রাজধানীর পান্থকুঞ্জে অবস্থিত এসটিএস উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
তাজুল ইসলাম বলেন, মশা নিয়ন্ত্রণে আমাদের পক্ষ থেকে দায়িত্ব পালন করা হচ্ছে।

মেয়র সাহেবরা কাজ করে যাচ্ছেন। এডিস মশার জন্ম হয় বাসাবাড়িতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন জায়গায়। আর ঝোপ-জঙ্গল, কচুরিপানায় অ্যানোফিলিস এবং কিউলেক্স মশার জন্ম হয়। কিউলেক্স মশা ৪ থেকে ৫ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরে উড়ে যেতে পারে। এডিস মশা এক কিলোমিটারের কম জায়গায় উড়তে পারে। ফলে আমরা খাল-বিল যখন সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার করতে সক্ষম হবো, তখন আমরা এই মশা নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হবো বলে বিশ্বাস করি।

নগরবাসীকে অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, সাংবাদিক ও নগরবাসী আপনারা বাস্তব অবস্থাটা অনুধাবন করবেন এবং সবাই আন্তরিক সহযোগিতা করবেন। আমাদের উপর বিশ্বাস রাখুন, আপনাদের যন্ত্রণা মানেই আমাদের যন্ত্রণা।

আমি প্রধানমন্ত্রীর একজন কর্মী হিসেবে কাজ করি, আমাদের মেয়রও প্রধানমন্ত্রীর মনোনীত। সবাই আমরা শেখ হাসিনার কর্মী, জাতির পিতার আদর্শে মানুষ। আমরা দেশ ও দেশের মানুষকে ভালোবাসি। মানুষের জন্য আমাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব অবশ্যই আমরা আন্তরিকতার সঙ্গে পালন করবো।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সিটি করপোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং স্থানীয় কাউন্সিলররা।

SHARE