Breaking News

মহিষ চু’রির আ’সা’মি ছিলেন পরীক্ষার হলে লাইভ দেয়া সেই ছাত্রলীগ নেতা

পরীক্ষা চলাকালীন ফেসবুক লাইভ করা সেই ছাত্রলীগ নেতা মনির হোসেন সুমন মহিষ চু’রির মা’ম’লায় আ’দা’লতে চার্জশিটভুক্ত আ’সা’মি। বর্তমানে মা’ম’লা’টি ঝিনাইদহ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আ’দা’লতে বিচারাধীন। আগামী ২৭ এপ্রিল এই মা’ম’লার পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ নির্ধারিত আছে। মা’ম’লায় জামিনে রয়েছেন মনির হোসেন।

মা’ম’লার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজে’লার গুড়পাড়া গ্রামের কৃষক নাসির উদ্দিনের গোয়ালঘর থেকে গত ২০২০ সালের ১৬ জুন রাতে দুটি মহিষ চু’রি যায়। এ ঘটনায় ১৮ জুন ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে কোটচাঁদপুর থা’নায় অ’ভিযোগ দেওয়া হয়। পরে কালীগঞ্জের চাচড়া এলাকা থেকে একটি এবং একই গ্রামের সেলিম হোসেনের বাড়ি থেকে আরেকটি মহিষ উ’দ্ধা’র করা হয়। ২০২০ সালের ২৭ জুন কোটচাঁদপুর থা’নায় সেলিম হোসেনসহ অ’জ্ঞা’ত ব্যক্তিদের আ’সা’মি করে মা’ম’লা করেন ভুক্তভোগী নাসির উদ্দিন। মা’ম’লা নম্বর ৭।

মা’ম’লার ত’দ’ন্ত কর্মক’র্তা কোটচাঁদপুর থা’নার তৎকালীন উপপরিদর্শক তৌফিক আনাম কালীগঞ্জ উপজে’লা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও শি’বনগর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছে’লে মনির হোসেন সুমনসহ তিনজনকে পলাতক ও দুই জনকে গ্রে’প্তা’র দেখিয়ে আ’দা’লতে চার্জশিট দাখিল করেন। পরে পলাতক আ’সা’মি আ’দা’লতে আত্মসম’র্পণ করেন। এরপর চার্জশিটভুক্ত পাঁচ আ’সা’মিই জামিনে বেরিয়ে আসেন।

ওই মা’ম’লার ত’দ’ন্ত কর্মক’র্তা বর্তমানে শৈলকুপা উপজে’লার হাটফাজিলপুর পু’লিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ তৌফিক আনাম বলেন, ‘মা’ম’লার চার্জশিট যখন আ’দা’লতে দাখিল করেছি তখন ঘটনার সত্যতা তো কিছু অবশ্যই ছিল। আমি পাঁচজনের নামেই আ’দা’লতে চার্জশিট দাখিল করেছিলাম। বর্তমানে মা’ম’লা’টি বিচারাধীন। আ’দা’লতই সিদ্ধান্ত নেবেন।’

মা’ম’লার বাদী কোটচাঁদপুর উপজে’লার গুড়পাড়া গ্রামের বাসিন্দা নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আমা’র মহিষ চু’রির ঘটনায় মা’ম’লা হয়েছিল। সেই মা’ম’লার আ’সা’মি ছাত্রলীগ নেতা মনির হোসেন সুমন কালীগঞ্জের ও কোটচাঁদপুরের নেতাদের এনে বারবার মা’ম’লা তুলে নিতে বলছিল। আমি একটু ভ’য়ে তো ছিলামই। তবে ঘটনা যাই হোক আমা’র মহিষ চু’রি হলো, আমি তো অবশ্যই জ’ড়ি’তদের শা’স্তি চাই। আ’দা’লত যেন সঠিকভাবে বিচার করে সেই প্রত্যাশা আমা’র।’

২০২০ সালের মহিষ চু’রির ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা মনির হোসেন সুমন জ’ড়ি’ত থাকার অ’ভিযোগ উঠলে সেসময় ঝিনাইদহ জে’লা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে চার সদস্য বিশিষ্ট ত’দ’ন্ত কমিটি করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তৎকালীন (বর্তমানে বিলুপ্ত কমিটি) জে’লা ছাত্রলীগের সভাপতি রানা হামিদ ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আওয়াল।

সদ্য বিলুপ্ত কমিটির জে’লা ছাত্রলীগের সভাপতি রানা হামিদ বলেন, ‘সেসময় অ’ভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের ত’দ’ন্ত কমিটি ঘটনার ত’দ’ন্ত করেছিল।’ তবে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল সেটি তিনি বলেননি।

বিষয়টি নিয়ে কালীগঞ্জ উপজে’লা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক (গতকাল শনিবার কমিটি বিলুপ্ত) মনির হোসেন সুমনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাঁর ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া গেছে।

এদিকে পরীক্ষার হলে লাইভ করার ঘটনা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হলে গতকাল শনিবার রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি প্রেস বি’জ্ঞ’প্তি দিয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ দেখিয়ে কালীগঞ্জ উপজে’লা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে।

ঘটনার ব্যাপারে ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের একাডেমিক ইনচার্জ মাহবুব উল ই’স’লা’ম বলেন, ‘আমাদের ত’দ’ন্ত কমিটি এরই মধ্যে ত’দ’ন্ত শুরু করেছে। বিভিন্ন জনের সাক্ষাৎকার নিয়েছে। আগামীকাল সোমবার ত’দ’ন্ত কমিটির প্রতিবেদন দেবে। সেটি কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে পাঠানো হবে।’

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার দেশব্যাপী কম্পিউটার অফিস অ্যাপ্লিকেশন ও গ্রাফিকস ডিজাইন বিষয়ে ছয় মাস ও তিন মাস মেয়াদি কোর্সের চূড়ান্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। কালীগঞ্জ উপজে’লার প্রিজম কম্পিউটার একাডেমির একজন পরীক্ষার্থী হিসেবে মনির হোসেন সুমন পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষা চলাকালে মনির হোসেন সুমন নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লাইভ শুরু করেন। সেখানে তিনি ঔদ্ধত্যপূর্ণ কথাবার্তা বলেন।

About admin

Check Also

ক্যামেরার সামনেই পোশাক বদলে তোপের মুখে নুসরত! অভিনেত্রীর এমন লুক দেখে ঘুম উড়ল ভক্তদের

আপাততঃ টলিউডের মোস্ট চর্চিত নায়িকার মধ্যে তিনি অন্যতম। তবে এখন তিনি টলিউডের সেক্সি মাম্মাও বটে! …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *