Breaking News

বাঘ হত্যায় কারাদণ্ড, ৪ বছর পর জানা গেল প্রাণীটি ছিল ‘কুকুর’!

ভারতের মধ্যপ্রদেশে বাঘ হত্যা ও চামড়া বিক্রির অপরাধে প্রায় চার বছর আগে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন অভিজিৎ, রাজেশ বিশ্বকর্মা, সন্দীপ আহিরওয়ার ও রামকুমার আহিরওয়ার নামে চার শিকারি।

নিজেদের নির্দোষ দাবি করলেও দেশটির বন্যপ্রাণী সুরক্ষা আইনে এক মাস কারাগারে ছিলেন তারা। আর ঘটনার শুরু সেখান থেকেই। চার বছর পর ফরেনসিক রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, বাঘ নয় বরং কুকুরের চামড়াসহ ধরা পড়েছিলেন তারা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, পুলিশ ও বন বিভাগ এক যৌথ অভিযান চালিয়ে ২০১৭ সালের ২২ জুলাই মধ্যপ্রদেশের ছিন্দওয়ারা জেলার রানিকামাথ গ্রামে বাঘের চামড়াসহ ওই চার যুবককে গ্রেপ্তার করে। তাদের বিরুদ্ধে আট লাখ রুপিতে একটি বাঘের চামড়া বিক্রির অভিযোগ আনা হয়। সেই সঙ্গে উদ্ধার করা হয় বাঘের চামড়াটিও।

ভুক্তভোগী চার যুবকের আইনজীবী সতিশ রাজের দাবি, ২০১৭ সালের ১৭ অক্টোবর স্থানীয় স্কুল অব ওয়াইল্ডলাইফ ফরেনসিক অ্যান্ড হেলথ নিশ্চিত করেছিল বাঘের নয় বরং চামড়াটি কুকুরের ছিল।

তারপরও কারাদণ্ড দেওয়া হয় তার মক্কেলদের। এখন চার বছর পর আদালতে দেওয়া প্রতিবেদনে চামড়াটি বাঘের নয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

জানা গেছে, ইতোমধ্যে ছিন্দওয়াড়ার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত অভিযুক্ত চার যুবককে বেকসুর খালাস দিয়েছেন।

তবে বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানাজানি হলে পুলিশ ও বন বিভাগকে কটাক্ষ করেছেন সাধারণ মানুষ।

About admin

Check Also

ভয়ঙ্কর কিং কোবারার সাথে খেলা করছে ছোট বাচ্চা, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

এবার যেন সবকিছু অতিক্রম করে ফেললো একটি ভিডিও। সব মানুষের নজর এক নিমেষেই কেড়ে নিল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *