Breaking News

এক কেজি আলুর দামে একটি লেবু! দেশটির নাম আপনার অজানা নয়😂

রোজার দ্বিতীয় দিন রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকায় ইফতারির আগে লেবু কেনার জন্য দরদাম করছিলেন রমিছা আনোয়ার। বড় আকারে এলাচি লেবুর দরদাম করছিলেন তিনি। বিক্রেতা চটজলদি বলে দেন এক দাম ২১০ টাকা ডজন। দুই ডজন নেবেন শুনে বিক্রেতা কিছুটা নমনীয় হলেন। ৪০০ টাকায় বিক্রি করলেন দুই ডজন লেবু। তাতে প্রতিটি লেবুর দাম পড়েছে ১৬ টাকা ৬৬ পয়সা। তবে এক ডজন নিলে সে ক্ষেত্রে প্রতিটির দাম সাড়ে ১৭ টাকা।

লেবু ব্যাগে ভরার সময় রমিছা আনোয়ার বলেন, ‘মাত্রাতিরিক্ত গরমে ইফতারির মেন্যুতে লেবুর শরবত চান পরিবারের সবাই। এ জন্য দাম বেশি হলেও লেবু নিতেই হলো। কয়েক দিন আগেও লেবুর দাম এত বেশি ছিল না। রোজা আসাতেই হঠাৎ দাম বেড়ে গেল।’

রমিছার কাছে ২০০ টাকা ডজন দরে লেবু বিক্রি করেও অসন্তুষ্ট বিক্রেতা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি বলেন, ‘যে দামে আমি লেবু কিনেছি তাতে ২০০ টাকায় ডজন বিক্রি করেও খুব বেশি লাভ হচ্ছে না।’

এদিকে রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকার খুচরা বাজারে গতকাল সোমবার বড় আকারের এক হালি এলাচি লেবু বিক্রি হয়েছে ৭০ টাকায়। সেই হিসাবে একটা লেবুর দাম ১৭ দশমিক ৫০ টাকা। এই টাকায় অনায়াসেই যেকোনো ক্রেতা এক কেজি আলু কিনতে পারবেন। কারণ, রাজধানীর খুচরা বাজারে প্রতি কেজি আলু এখন বিক্রি হচ্ছে ১৬ থেকে ১৮ টাকায়।

সরেজমিনে রাজধানীর জিগাতলা, ধানমন্ডি, কাঁঠালবাগান ও কারওয়ান বাজার ঘুরে দেখা গেছে, আকারভেদে খুচরা বাজারে এলাচি লেবুর হালি ৪০, ৫০ ও ৭০ টাকা। পাইকারি দামও প্রায় একই। কারওয়ান বাজারে পাইকারি বিক্রেতারাও প্রতি হালি এলাচি লেবু বিক্রি করছেন সর্বোচ্চ ৬০ টাকায়। তবে মানভেদে ৩০ টাকা হালিতেও লেবু বিক্রি হচ্ছে কারওয়ান বাজারে।

এলাচি লেবুর বাইরে বাজারে সাধারণত কলম্বো, কাগজি ও টাঙ্গাইলের বিচিহীন লেবু পাওয়া যায়। তবে বাজারে এখন এলাচি লেবুর সরবরাহই বেশি। সুগন্ধি লেবু হিসেবে খ্যাত কলম্বো লেবুর সরবরাহও মন্দ নয়। এই লেবুর হালি ৫০ টাকা, অর্থাৎ প্রতিটির দাম সাড়ে ১২ টাকা।

কারওয়ান বাজারের পাইকারি লেবু ব্যবসায়ী সুমন আহমেদ বলেন, ‘লেবুর দাম এক সপ্তাহের ব্যবধানে বেশ বেড়েছে। বিশেষ করে রোজা শুরুর পর এ দাম হু হু করে বেড়ে গেছে। কারণ, বাজারে চাহিদা বেশি, জোগান কম। এক সপ্তাহ আগেও আমরা যে লেবু প্রতি বস্তা ৩-৪ হাজার টাকায় কিনেছি, এখন তা ৮-১০ হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে।’

কিছুদিনের মধ্য দাম কমে যাবে বলে মনে করেন সুমন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘রোজার শুরুতে দাম একটু বেশি থাকে। এটা মূলত সরবরাহের ঘাটতির কারণে হয়। আমরা যে অনেক লাভ করছি এমন না। উৎপাদক পর্যায়েই এখন দাম বাড়তি।’

এদিকে শ্রীমঙ্গলে আড়তের ২ টাকার দামের লেবু হাতবদলেই খুচরা পর্যায়ে গিয়ে বিক্রি হচ্ছে ৮ থেকে ১০ টাকায়। ঢাকায় এসে সেই লেবুর দাম আরও বেড়ে যাচ্ছে।

বাংলাদেশে লেবুর চাষ বেশি হয় সিলেট, চট্টগ্রাম, টাঙ্গাইল, শেরপুর ও ময়মনসিংহ অঞ্চলে। পাহাড়ি এলাকা হওয়ায় এসব অঞ্চল লেবু চাষের উপযোগী। তবে এখন সমতলেও লেবুর ভালো ফলন হয়। ঢাকার পার্শ্ববর্তী নরসিংদী, উত্তরাঞ্চলের নাটোর কিংবা দক্ষিণের যশোরের মতো জেলায় লেবুর চাষ বাড়ছে।

About admin

Check Also

একসঙ্গে ৩ ছেলে সন্তানের জন্ম দিলো প্রতিবন্ধী নারী, একটি নিয়ে গেলো চোরে

পাবনা জেনারেল হাসপাতালে একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন মানসিক প্রতিবন্ধী এক নারী। এর মধ্যে একটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *