Breaking News

এই পদ্ধতিতে দাঁতের যে কোনো পাথর বা হলুদ দাগ সহ দূর হবে দু,র্গন্ধ, দাঁত হবে একদম সাদা ও চকচকে!

দাঁত আমাদের খুব গুরুত্ব,পূর্ণ একটি অঙ্গ। সাধারণত আমাদের শ,ক্ত কোন খাবার খাওয়ার সময় খাবারগুলোকে কেটে ছোট করতে সাহায্য করে। তবে আমরা অনেকেই খুব কম বয়সেই দাঁতের বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকি। আর আমরা এই সমস্যা গুলোর সম্মুখীন হয়ে থাকি সঠিকভাবে দাঁতের যত্ন না নেওয়ার কারণে।

বিশেষ করে যারা বিভিন্ন তামাক পদার্থকে সেবন করে থাকি তাদের যাতে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। যেমন পাথর,কালো দাগ, দাঁতের ক্ষয় ইত্যাদি সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকি। এছাড়াও বিভিন্ন কারণে দাঁতের সমস্যা হতে পারে। দাঁত মানুষের বাহ্যিক সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে । মানুষের বাহ্যিক সৌন্দর্য অনেকটা দাঁতের সৌন্দর্যের উপর নির্ভর করে। আমাদের প্রত্যেকের দাঁতের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা উচিত।

আরে এই দাঁতের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার জন্য নিয়মিত দাঁতের যত্ন নেওয়া উচিত। যারা বিড়ি সিগারেট, পান, মদ,গুল এর মত বিভিন্ন মাদক সেবন করে থাকে তাদের দাতে বিভিন্ন ময়লা জমে ব্যাকটেরিয়া জন্ম হয়। এবং তা দাঁতসহ মুখের ক্যান্সারের মত বিভিন্ন ভয়ঙ্কর রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে। এবং মুখের দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়। যাদের দাঁত পরিষ্কার এবং দুর্গন্ধ যুক্ত থাকে তাদেরকে কেউ পছন্দ করেনা।

তাই আমাদের সমস্যাগুলো থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত দাতের যত্ন নেওয়া উচিত। আমরা বর্তমানে ইউটিউব কিংবা বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান হিসেবে বিভিন্ন ভিডিও সচরাচর পেয়ে থাকি। ঠিক তেমনি আজকের এই ভিডিওটিতে দেখানো হয়েছে কিভাবে খুব সহজে ঘরে বসে অল্প সময়ে এবং অল্প খরচে দাঁতের বিভিন্ন রোগ থেকে রক্ষা করার জন্য এবং দাঁত পরিষ্কার করার জন্য একটি ফর্মুলা তৈরি করা যায়।

উপকরণ: রসুন, লবণ, লেবু, টুথপেস্ট প্রক্রিয়া প্রণালী: প্রথমে তিন থেকে চার পিস রসুন নিতে হবে। এবং তা ভালো করে পিসে নিতে হবে। এবং এর মধ্যে 2 থেকে 3 চিমটি লবণ মিক্স করতে হবে। দাঁতের ভেতরের বিভিন্ন জীবাণু এবং ব্যাকটেরিয়া দূর করতে লবণ ব্যবহার করা হয়। এজন্যই অনেকে লবণের পানি দিয়ে কুলকুচি করে। তারপরে এর সাথে পরিমাণ মত কিছু লেবুর রস অ্যাড করতে হবে। সবশেষে একসাথে পরিমাণমতো কিছু টুথপেস্ট মিক্স করতে হবে।

About admin

Check Also

ঠিক কি কারণে বাড়ছে স্ট্রোক উচ্চ রক্তচাপ ও কিডনি সমস্যার মতো বড় বড় রোগ

বাংলাদেশে প্রাপ্ত প্রক্রিয়াজাত প্যাকেটের খাবারের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশে (৬১ শতাংশ) নিরাপদ মাত্রার চেয়ে বেশি লবণ। সামনের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *